বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০

যেকোনো উপায়ে বোল্টনের আত্মজীবনী প্রকাশ ঠেকাতে চান ট্রাম্প





মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের আত্মজীবনী প্রকাশ হওয়া ঠেকাতে বিচার বিভাগের শরণাপন্ন হয়েছে হোয়াইট হাউজ। আগামী ২৩ জুন বইটির মোড়ক উন্মোচন হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু তার আগেই মার্কিন বিচার বিভাগের মাধ্যমে এটির প্রকাশ বন্ধ করে দিতে চায় হোয়াইট হাউজ।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের আবাসিক প্রাসাদ বহুবার বলেছে, বোল্টনের আত্মজীবনীতে রাষ্ট্রীয় অনেক গোপন তথ্য রয়েছে। তবে এতে রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য থাক আর না থাক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অনেক গোপন কীর্তি রয়েছে বলে অনেকে মনে করছেন। বোল্টন তার বইয়ের নাম দিয়েছেন, ‘দ্যা রুম হোয়্যার ইট হ্যাপেন্ড’ বা ‘ঘটনা ঘনঘটার কক্ষ’।

ট্রাম্প এ সম্পর্কে বলেছেন, বোল্টনের এই বই প্রকাশ হবে বেআইনি এবং এতে অনেক ‘মিথ্যা তথ্য’ রয়েছে। জন বোল্টন প্রচুর মিথ্যা কথা বলেন বলেও অভিযোগ করেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, বইটি প্রকাশ হলে বোল্টন আইনি পদক্ষেপের সম্মুখীন হবেন।

ধারনা করা হচ্ছে, যে ইউক্রেন ইস্যুতে কিছুদিন আগে মার্কিন কংগ্রেসে ট্রাম্প ইমপিচমেন্টের সম্মুখীন হয়েছিলেন তার কিছু অপরাধ আছে তার চেয়েও ভয়াবহ। বোল্টনের বইয়ে সেসব অপরাধী তৎপরতা প্রকাশ হয়ে যেতে পারে বলে ডোনাল্ড ট্রাম্প শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।


মার্কিন প্রেসিডেন্ট দাবি করেছেন, তিনি দেশের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ফোনে যেসব কথাবার্তা বলেছেন, তা ‘রাষ্ট্রীয় গোপন বিষয়’ এবং তা প্রকাশ করে দেয়ার অধিকার কারো নেই।

ট্রাম্প সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও তার ছেলে হান্টারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তের জন্য ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্টকে চাপ দিয়েছেন বলে একটি ফোনকলে দেখা গেছে৷ ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ফোনকলের ধারণ করা অংশ গত বছরের সেপ্টেম্বরে প্রকাশ করতে বাধ্য হয় হোয়াইট হাউজ৷

তাতে দেখা যায়, ট্রাম্প তার ব্যক্তিগত আইনজীবী রুডি জুলিয়ানি এবং মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বারের সঙ্গে সমন্বয় করে এই তদন্তকাজ করতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে অনুরোধ করেছেন৷ এই তদন্ত না করলে ট্রাম্প ইউক্রেনকে আর্থিক সহায়তা না করার বিষয় নিয়েও কথা বলেন৷জো বাইডেন চলতি বছর নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী হতে পারেন।

জন বোল্টনের প্রকাশ হতে যাওয়া আত্মজীবনীতে ইউক্রেন সংক্রান্ত এমন কিছু তথ্য প্রকাশ হতে পারে যা এখনো কারো জানা নেই। আর এ কারণেই ট্রাম্প উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন।


-রেডিও তেহরান